এবার স্থানীয় ৯১ ক্রিকেটার দিচ্ছেন বেতনের অর্ধেক

জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের পর এবার স্থানীয় ৯১ ক্রিকেটার অসহায় ও দুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

বাংলাদেশের চুক্তিবদ্ধ ৯১ প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার তাদের বেতনের অর্ধেক টাকা অনুদান দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব) বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

করোনাভাইরাসের ধাক্কায় জনজীবন বিপর্যস্ত। করোনার সংক্রমণ যেন না ছড়ায় এ জন্য ঘরে অবস্থান করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে। তাতে খেটে খাওয়া মানুষের কষ্টের শেষ নেই। যারা দিনে এনে দিনে খায় তাদের পেটের তাগিদে ঘরের থেকে বের হতে হচ্ছেই। সামর্থ্য অনুযায়ী বিত্তবানরা অসহায় ও দুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে।

জাতীয় দলের ২৭ ক্রিকেটার তাদের এপ্রিল মাসের বেতনের অর্ধেক টাকা অনুদান করেছেন। ট্যাক্স কাটার পর মোট ২৬ লাখ টাকা জমা হয়েছে। কোয়াবের সাধারণ সম্পাদক দেবব্রত পাল বলেছেন, ‘ক্রিকেটাররা নিজেদের ইচ্ছাতেই বেতনের অর্ধেক অনুদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আমরা ধারনা করতে পারছি না যে আসলে কতো টাকা পাবো। কারণ গ্রেড অনুযায়ী একেক ক্রিকেটারের বেতন একেকরম। এরপর নিয়ম অনুযায়ী ট্যাক্সও কাটা হবে। বিসিবির অ্যাকাউন্টস বিভাগ আমাদের নিশ্চিত করতে পারবে। ’

ক্রিকেটারদের ধন্যবাদ জানিয়ে কোয়াব বলেছে, ‘দেশের এই ক্রান্তিকালে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটাররা যে মানবিকতা, দায়িত্ববোধ ও সচেতনতার পরিচয় দিয়েছেন তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। ক্রিকেটারদের সংগঠন হিসেবে তাদের এই গুরুত্ববহ সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান জানাচ্ছি। ’

কোয়াব মনে করে, সবার ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার মাধ্যমেই বর্তমান দুর্যোগ মোকাবিলা সম্ভব।

দেবব্রত পাল আরও বলেছেন, ‘আমাদের সবাইকে অনুধাবন করতে হবে, আমাদের একতা ও সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমেই ক্রিকেটারদের স্বার্থরক্ষা ও দেশের ক্রিকেটের উন্নয়ন সম্ভব। আমরা বিশ্বাস করি, আগামী দিনগুলোতে ক্রিকেটারদের এই সম্মিলিত প্রচেষ্টায় দেশের ক্রিকেট উন্নয়ন ও গুণগত মান উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাবে।’

দেশের বাইরে অবস্থানরত বর্তমান ও প্রাক্তন ক্রিকেটার এবং সংগঠকদের আর্থিক সহায়তায় এগিয়ে আসার আহ্বান করেছে কোয়াব। শিগগিরিই বিভিন্ন জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবে কোয়াব।

প্রসঙ্গত, ব্যক্তিগতভাবে একাধিক ক্রিকেটার এরই মধ্যে নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী অসহায় ও দুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। এবার তাঁরা সবাই এক ছাতার নিচে এসে দুঃসময়ে মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে।

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন