দিনাজপুরে সংবাদ সম্মেলনে প্রশাসনের কাছে জমি ও জীবন বাঁচাতে সহযোগীতার আবেদন

বসতভিটা রক্ষা ও পরিবারসহ জীবন বাঁচাতে সংবাদ সম্মেলনে প্রশাসনের কাছে সাহায্য চাইলেন দিনাজপুর পৌর এলাকা মহারাজা মোড়ে পুলিশের উপস্থিতিতে সন্ত্রাসীদের নির্যাতন নিপিড়নের স্বীকার অসহায় একজন বাসিন্দা। ২৫ অক্টোবর সোমবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সন্ত্রাসীদের হাত থেকে বসতভিটা ও জীবন বাঁচাতে প্রশাসনের সাহায্য কামনা করে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মো: গোলাম রাব্বী রানা।

তিনি বলেন, উত্তর বালুবাড়ি মহল্লার ওয়াজেদ আলীর পুত্র সন্ত্রাসী সোহাগ এবং মো: সাইফুলের পুত্র নয়নসহ আরো অজ্ঞাত ১০/১২জন সন্ত্রাসী চাপাতি,সামুরাইসহ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে গত ১৫ এবং ২২ অক্টোবর/২১ তারিখে মাত্র এক শতক জমি দখলের জন্য আমার বাড়িতে তারা হামলা চালায়। এ হামলায় তারা বাড়ির সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে বিভিন্ন ঘরের মুল্যবান আসবাব পত্র ব্যাপক ভাংচুর করে।

ভাংচুরের সময় তারা ঘরে রক্ষিত নগদ টাকাসহ মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। লিখিত বক্তব্যে বলেন, লটুপাট ও ভাংচুরে বাধা দিতে গেলে সন্ত্রাসীরা হত্যার উদ্দ্যোশে আমার বৃদ্ধ মা মোসলেমা খাতুন, স্ত্রী সাহেরা আক্তার ও সন্তান শাফিন ফেরদৌস শাওন ও সোহান ফেরদৌসকে লোহার রড ও লাঠি দিয়ে নির্দয় এবং নিষ্ঠুর ভাবে পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করেছে। সন্ত্রাসী সোহাগ ও তার সহযোগীরা আমাকে জমি ছেড়ে দিতে বলেছে নইলে জীবন দেয়ার জন্য প্রস্তুত থাকারও হুমকি দেয়।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে গোলাম রাব্বী বলেন,স্থানীয় কমিশনার রেহাতুল ইসলাম খোকার ইন্ধনে এবং পুলিশের উপস্থিতিতেই আমরা নির্যাতনের স্বীকার হয়েছি, মামলা করেছি পুলিশী এখনো কাউকে গ্রেফতার করছে না। আমরা ৯৯৯ ফোন দেয়ায় ঘটনাস্থলে রবিউল ইসলাম নামে একজন পুলিশের কর্মকর্তাসহ কয়েকজন পুলিশ এলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি বরঞ্চ সন্ত্রাসীদের পক্ষেই সাফাই গাইতে থাকে। তাদের উপস্থিতেই সন্ত্রাসীরা আমাদের হত্যার হুমকি দিয়েছে। আমরা প্রশাসনের কাছে জমি ও জীবন বাঁচাতে সবধরনের সহযোগীতা চাই। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, মোছা: মোসলেমা খাতুন, মোছা: সাহেরা আক্তার মো: শাফিন ফেরদৌস ও মো: সোহান ফেরদৌস।

বার্তা প্রেরক
মোঃ নাজমুল ইসলাম (মিলন)
দিনাজপুর প্রতিনিধি

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন