রাজশাহীর বাগমারায় অতিরিক্ত দামে সার বিক্রির অভিযোগ

রাজশাহীর বাগমারায় চলতি রবি শস্য মৌসুমে অতিরিক্ত দামে সার বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এক শ্রেণীর অসাধু ডিলার ও সাব ডিলারসহ বাজারের বিভিন্ন খুচরা ডিলাররা সার সংকটের ধুয়া তুলে কৃষকদের কাছে থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায় করছেন। এই পরিস্থিতিতে ন্যায্য মূল্যে সার না পাওয়ায় কৃষকরা বেশী দামেই কিনতে বাধ্য হচ্ছে। এতে ডিলারসহ কিছু অসাধু ব্যবসায়ী লাভবান হলেও কৃষকরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন ও দু’টি পৌর এলাকার প্রায় সাড়ে তিন লাখ মানুষ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কৃষির উপর নির্ভরশীল। বর্তমানে রবি মওসুমে আলু, গম, পিঁয়াজ, সরিষাসহ বিভিন্ন ফসলে রাসায়নিক সারের ব্যাপক চাহিদা। সারের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় স্থানীয় সার ডিলাররা সরকারি দামের চেয়ে বেশী দামে বিক্রি প্রবণতা বাড়িয়েছে। কৃষকরা বাজারে গিয়ে ন্যায্য মূল্যে সার কিনতে না পেরে খালি হাতে বাড়ি ফিরছেন।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকার কৃষকরা অভিযোগ করে জানান, সরকার প্রতি বাস্তা টিএসপি সার সরকারী মূল্য ১১০০ টাকা নির্ধারণ থাকলে তা বিক্রি চলছে ১৩০০ টাকা থেকে ১৪০০ টাকায়, পটাশ (এমপিও) ৭০০ টাকার মূল্যের সার বিক্রি চলছে ৮০০ টাকা থেকে ৯০০ টাকায়, ডিএপি সার ৮০০ টাকায় বিক্রির কথা থাকলেও নেয়া হচ্ছে ৮৫০ টাকা। একইভাবে দেশে উৎপাদিত টিএসপি সার দ্বিগুণ দামে বিক্রি করা হচ্ছে। স্থানীয় কৃষি অফিসার নিয়মিত মনিটরিং এর কথা দাবি করলেও কৃষকরা মনিটরিং ব্যবস্থাকে দুসছেন। এই পরিস্থিতিতে সার কিনতে গিয়ে সরকারী মূল্যে সার না পাওয়ায় কৃষকরা হতাশা প্রকাশ করেছে।

বার্তা প্রেরক
মোঃ সাইফুল ইসলাম
বাগমারা (রাজশাহী) প্রতিনিধি

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন