বাগেরহাটে এক শাপলাপাতা মাছের দাম ৪৮ হাজার টাকা

বাগেরহাটে ১০ মন ওজনের এক বিশালাকৃতির “শাপলাপাতা” মাছ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) সকালে বাগেরহাট শহরের কেবি বাজারে জেলেরা এই মাছটি নিয়ে আসেন বিক্রির জন্য। বিশালাকৃতির মাছটি দেখতে অনেকেই ভীড় জমান কেবি বাজারে। পরে কেবি বাজারস্থ অনুপ কুমার বিশ্বাসের আড়তে উন্মুক্ত ডাকের মাধ্যমে মাছটি বিক্রয় করা হয়।

মাছ ব্যবসায়ী জাফর ও জাকির সরদার ৪৮ হাজার টাকায় মাছটি ক্রয় করেন। বাগেরহাট সদর উপজেলার খানজাহান আলী মাজার মোড় সংলগ্ন হাটে ৩৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছেন। পাঁচদিন আগে সুন্দরবন সংলগ্ন বঙ্গপসাগরে জেলেদের জালে বিশালাকৃতির এই মাছটি ধরা পরে। মাজার মোড় সংলগ্ন বাজারে আসা কেরামত আলী বলেন, মাইকে ১০ মন ওজনের মাছ বিক্রির কথা শুনলাম। বাজারে এসে ২ কেজি কিনলাম। পুরো মাছ দেখতে পারিনি।

অনুপ কুমার বিশ্বাস বলেন, পাথরঘাটার মাছ ব্যবসায়ী মাসুম কোম্পানির জেলেদের জালে মাছটি ধরা পরে। সকালে আমার আড়তে ৪৮ হাজার টাকায় মাছটি বিক্রি হয়। এত বড় মাছ খুব কম পাওয়া যায়। মাছ ব্যবসায়ী জাকির বলেন, “শাপলাপাতা” মাছ খুবই সুস্বাদু। সাধারণ এক থেকে তিন মনের মাছ প্রায়ই পাওয়া যায়। যেগুলো খুচড়ো বাজারে আমরা ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করি। এটি যেহেতু অনেক বড় তাই ৩৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি। আসা করি বিকেল নাগাদ সব মাছ বিক্রি হয়ে যাবে।

কেবি বাজার আড়ৎদার সমিতির সভাপতি আবেদ আলী বলেন, মাঝে মাঝে জেলেদের জালে বড় মাছ ধরা পরে। সকালে বিক্রি হওয়া “শাপলাপাতা” মাছটির ওজন অন্তত ১০ মনের মত হবে। এর আগেও ২৭ কেজি ওজনের একটি কৈয়া ভোল মাছ কেবি বাজারে নিয়ে এসেছিল জেলেরা। দেরলক্ষাধিক টাকায় মাছটি বিক্রি হয়েছিল।

বার্তা প্রেরক
তানজীম আহমেদ
বাগেরহাট প্রতিনিধি

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন