স্বর্ণের বার লুট: ফেনী ডিবির পরিদর্শকসহ ছয় কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

এক ব্যবসায়ীকে আটক করে তাঁর কাছ থেকে ২০টি সোনার বার লুট করার অভিযোগে ফেনীতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শকসহ ছয় কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রাতে তাঁদের গ্রেপ্তার করার কথা জানান ফেনীর পুলিশ সুপার খোন্দকার নূরুন্নবী। তিনি বলেন, লুট হওয়া সোনার বারগুলোর মধ্যে ১৫টি উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার ছয়জন হলেন ফেনী জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) মো. সাইফুল ইসলাম, উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোতাহার হোসেন, নুরুল হক ও মিজানুর রহমান এবং সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) অভিজিৎ বড়ুয়া ও মাসুদ রানা।

পুলিশ সূত্র বলেছে, স্বর্ণ ব্যবসায়ী গোপাল কান্তি দাস চট্টগ্রাম শহরের হাজারী গলিতে ব্যবসা করেন। গত রোববার বিকেলে তিনি ২০টি সোনার বার নিয়ে ঢাকা যাচ্ছিলেন। ওই দিন সন্ধ্যা ছয়টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ফেনী সদর উপজেলার ফতেহপুর রেলওয়ে ওভারপাস এলাকায় ডিবি পুলিশ তাঁর গাড়ি থামায়। এরপর তাঁকে আটক করে সোনার বারগুলো ছিনিয়ে নেওয়া হয়। এ ঘটনায় গতকাল ফেনী সদর মডেল থানায় মামলা করেন ওই ব্যবসায়ী। এরপরই বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় ডিবির ওই ছয় কর্মকর্তাকে রাতে গ্রেপ্তার করা হয়।

ব্যবসায়ী গোপাল কান্তি দাস সাংবাদিকদের বলেন, রোববার সন্ধ্যায় তাঁকে আটক করার পর সোনার বারগুলো ছিনিয়ে নিয়ে রাত আটটার দিকে ছেড়ে দেন ডিবির অভিযুক্ত ওই কর্মকর্তারা। এই ব্যবসায়ীর দাবি, তাঁর কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়া ২০টি সোনার বারের বাজারমূল্য ১ কোটি ২৪ লাখ টাকা। ফেনী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নিজাম উদ্দিন বলেন, ব্যবসায়ীর কাছ থেকে সোনার বার লুটের ঘটনায় ডিবি পুলিশের পরিদর্শকসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ বুধবার (১১ আগস্ট) তাঁদের আদালতে সোপর্দ করা হবে।

বার্তা প্রেরক
শেখ আশিকুন্নবী সজীব
ফেনী প্রতিনিধি

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন