মোরেলগঞ্জে নার্সারী করে স্বাবলম্বী আবুবকর শেখ

বাগেহাটের মোরেলগঞ্জে নার্সারি করে সফলতা পেয়েছেন আবুবকর শেখ। স্কুল জীবনে ফুলেরর বাগান করার শখ থেকে পরবর্তীতে নার্সারি পেশাকে আয়ের একমাত্র উৎস হিসেবে বেছে নিয়েছেন তিনি। শিশুকালের সেই গাছ লাগানোর শখটিকে পরবর্তীতে ১৪ বছর বয়সে নিজ বাড়ির আঙ্গিনার ১০ কাঠা জায়গায় নার্সারীর কাজ শুরু করেন । ৩০ বছর পরে আজ প্রায় ১২ বিঘা জমিতে তার নার্সারী প্রতিষ্ঠিত। যার নাম দিয়েছেন ‘ আলিফ নার্সারী’। এখন সেখানে তার কোটি টাকার বিনিয়োগ রয়েছে।

মাত্র ০৯ বছর বয়সে বাবাকে হারিয়ে লেখপড়া আর হয়নি তার । প্রথমে কিছু বনজ ও ফলদ চারা দিয়ে তার নার্সারির যাত্রা শুরু হয়। এরপর ধীরে ধীরে চলতে থাকে তার এ নার্সারি ব্যবসা। শুধু নার্সারীতেই সীমাবদ্ধ থাকেননি তিনি। এখন ফরমালিন বা বিষমুক্ত বিভিন্ন ফল এলাকায় সরবরাহের এক বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছেন।

দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান দেশি-বিদেশি বিভিন্ন জাতের চারা ও বীজ সংগ্রহ করে তার এ নার্সারি থেকে। কি নেই এ নার্সারীতে (?) দেশি-বিদেশী বিভিন্ন জাতের ফুলের, ফলের গাছ, বনজ ও ঔষধী গাছের চারা, মাছের চাষ, ঘাসের চাষ, মধু চাষ, পানের চাষ আরো অনেক কিছু। এখন তার বয়স ৪৪ বছর। আজ পরিণত বয়সে তিনি কোটিপতি। আবুবকর শেখের নার্সারি ব্যবসার সফলতা দেখে এলাকার অনেক বেকার যুবক অনুপ্রাাণিত হচ্ছেন এ কাজে।

আবুবকর শেখ ভোরের কাগজকে জানান, বর্তমানে ১২ বিঘা জমিতে তার এ নার্সারি। বিভিন্ন দেশি-বিদেশী ফুলের চারা যেমন, বেলি, হাসনা-হেনা, জুঁই, চামিলী, বিভিন্ন প্রজাতির গোলাপ, মৌচান্ডা, চেরী, রঙ্গন, রাধা, পদ্ম, রজনীগন্ধা, জবা, ক্যাকটাস, বাগান বিলাস, চায়না টগর, বকুল, কৃষ্ণচুড়া, , গন্ধরাজ, , কিসমাস ট্রি, পাতাবাহার, ঝাউ গাছসহ ১০০ প্রজাতির ফুলের চারা রয়েছে এখানে। ফলের মধ্যে বিভিন্ন দেশি জাতের নারিকেল চারাসহ তার এখানে ভিয়েতনাম ও বার্মার নারিকেল ও সুপারির চারা রয়েছে।

যা মাত্র ৩ থেকে সাড়ে ৩ বছরের মধ্যেই ফলন ধরে। এছাড়া বিভিন্ন জাতের বনজ ও ভেষজ যেমন- রেন্টি, চাম্বল, মেহগনি, অর্জুন, নিম , আকাশ মনি, অশোক, বাসক, হরতকি, বহেরা, আমলকি চারা ছাড়াও দেশি-বিদেশি জাতের আম, জাম, কাঠাল, পেয়ারা, বেদানা, কমলা, আমড়া, শরুফা, লেবু, জাম্বুরা, পেপে, সফেদা, মাল্টা, বড়ই, কামরাঙ্গা, মিষ্টি তেতুল, চালতা, লিচু, বেল, ড্রাগন, লটকনসহ প্রায় ৮০ জাতের চারা রয়েছে এখানে ।

আমের জাতের মধ্যে হাঁড়িভাঙা, ল্যাঙড়া, আ¤্রপালি, হিমসাগর, গুটি, ফজলি, গৌরমতি, কাঠিমণ, বারি-৪, বারি-১১, বেনানা ম্যাঙ্গো সহ ৫০ এর বেশি জাতের চারা রয়েছে তার। আপলে কুল, বাউ কুল ছাড়াও ‘বলসুন্দরী’ নামে এক জাতের সুস্বাদু অধিক ফলনের কুলচারা রয়েছে তার । তিনি নিজেই এ কুলের চাষ করে গেল বছর ১শ’ মণ কুল বিক্রি করেন। প্রতি কুলের কেজি ১৫০ /১৬০ টাকা। এছাড়া এখানে রয়েছে বিভিন্ন প্রজাতির ঔষধি গাছ। সারাদেশের বিশেষ করে খুলনা ও বরিশাল বিভাগের বিভিন্ন এলাকা থেকে থেকে এখানে এসে চারা কিনে নিয়ে যান বিভিন্ন ব্যক্তি। তিনি অনলাইনের মাধ্যমে চারা ক্রয়-বিক্রয় করে থাকেন।

প্রতিদিন তিনি গড়ে প্রায় ৮শ’ থেকে ১ হাজার চারা বিক্রি করেন। এছাড়া তিনি বিভিন্ন বিষমুক্ত কাঁচা ফল এখান থেকে সরবরাহ করে থাকেন। তিনি আরো জানান, এ মৌসুমে এখন পর্যন্ত ২শ’ মণ আম তিনি বিক্রি করেছেন। নার্সারীর মধ্যে রয়েছে বেশকিছু লেক । লেকের মধ্যে তিনি গলদা চিংড়ি, রুই, কাতলা সহ বিভিন্ন জাতের মাছের চাষ করেন। তিনি জানান, চলতি মৌসুমে সুপারি, নারিকেল, আম, লেবু, সফেদা ও মাল্টার চারা বিক্রি হচ্ছে। এবছর তিনি এখন পর্যন্ত সবমিলিয়ে ৬ লাখ টাকার বেশি চারা বিক্রি করেছেন।

মৌসুম ছাড়াও তিনি সারা বছরই মোটামুটি কম-বেশি চারা বিক্রি করে থাকেন। এছাড়া তিনি ফলের অধিক পরাগায়নের জন্য মৌমাছির চাষ করেন এবং বেশকিছু মধু তিনি এখান থেকে বিক্রি করে থাকেন। বছরে তিনি ৩৬ থেকে ৪০ লাখ টাকার গাছ ও ফল বিক্রি করে থাকেন। তার এখানে ১০ জন কর্মচারী নিয়মিত কাজ করে। উপজেলার গাবগাছিয়া ৯০ রশি বাসস্ট্যান্ডের পাশেই তার এ ‘আলিফ নার্সারী’ এবং প্রদর্শন কেন্দ্র। এখান থেকে সড়ক ও নৌপথে সহজেই চারা পরিবহনের ব্যবস্থা রয়েছে।

তিনি আরো জানান, নার্সারি ব্যবসা লাভজনক হওয়ায় তার এ নার্সারিটি আরো বর্ধিত করার জন্য কাজ চলছে। এ নার্সারিটিকে আরো বৃহৎ আকারে এবং গবেষণাধর্মী করার পরিকল্পনা রয়েছে তার। এলাকার উদ্যোগী বেকার যুবদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কাজে লাগানোর পরিকল্পনা আছে তার। তবে তিনি অভিযোগের সুরে জানান, উপজেলা কৃষি বিভাগ থেকে প্রত্যাশিত সহযোগিতা তিনি পান না।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সিফাত আল মারুফ জানান, নার্সারি একটি লাভজনক ব্যবসা। বেকার যুবকরা নার্সারি করে স্বাবলম্বী হতে পারে। কৃষি দপ্তরের বহু পদ খালি থাকায় জনবল সংকটের জন্য মাঠ পর্যায়ে প্রত্যাশিত সেবা দিতে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে।

বার্তা প্রেরক
এইচ এম জসিম উদ্দিন
মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন