ফেনীর ছাগলনাইয়া পৌরসভা নির্বাচন – বিপুল ভোটারের উপস্থিতি, শান্তিপূর্নভাবে ভোটগ্রহন চলছে,আটক-৪

ফেনীর ছাগলনাইয়া পৌরসভার নির্বাচন আজ ০২ নভেম্বর, মঙ্গলবার বিপুল ভোটারের উপস্থিতিতে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহন চলছে। পৌরসভার ১৩টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ৪টি কেন্দ্রের অভ্যন্তরে বুথের মধ্যে প্রভাব বিস্তারের অভিযোগে নৌকার দুই এজেন্টসহ চারজনকে পুলিশ আটক করেছে। এছাড়া অন্য কোন কেন্দ্রে কোনধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। সকাল-৮টা থেকে ভোটগ্রহন শুরু হলেও বিভিন্ন কেন্দ্রে বিভিন্ন এলাকার ভোটাররা ভোর থেকেই নিজ নিজ কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে লাইনে দাঁড়াতে থাকে। সকাল -৮টা থেকে বেলা-১২ টা পর্যন্ত পৌরসভার ১৩টি কেন্দ্রের মধ্যে ৮টি কেন্দ্রে বিপুল সংখ্যক নারী -পুরুষ ভোটারের উপস্থিতি দেখা যায়। বিশেষ করে সবগুলো কেন্দ্রে নারী ভোটারদের বিপুল উপস্থিতি ও দীর্ঘ লাইন ধরে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

পৌরসভার উত্তর পানুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সকাল সাড়ে ৮টায় নৌকা প্রতীকের একজন কর্মী বুথের মধ্যে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরনের অভিযোগে আটক করা হয়। সকাল-৯টার দিকে ছাগলনাইয়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের একটি বুথে ভোটারের পরিবর্তে নিজেই ইভিএম মেশিনের বোতামে চাপ দেয়ার অভিযোগে একজনকে আটক করা হয়।এছাড়া বেলা সাড়ে ১০ টায় ছাগলনাইয়া সরকারি শিশু সদন কেন্দ্রে ১জনকে এবং ছাগলনাইয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে নৌকা প্রতিকের পক্ষে অবৈধ প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করার অভিযোগে আরও ১জনকে আটক করা হয়।
এ নিয়ে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত চারজনকে আটক করা হয়।

দক্ষিন সতর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটার লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা ছালেহা আক্তার,বিবি মরিয়ম,নুরুন নাহারসহ কয়েকজন ভোটার জানায় তারা খুব সকালে ভোট দিতে লাইনে দাঁড়ায়। গত একাধিক নির্বাচনে তারা ভোট দিতে কোন সুযোগই পায়নি এবং তারা ভোট দিতে কেন্দ্রেই আসেনি। সকাল -সাড়ে ১০ টায় পূর্ব ছাগলনাইয়া সীমান্তবর্তী বাগান বাড়ী দিনিয়া কমপ্লেক্স কেন্দ্রের সামনে নারীদের লম্বা সারি দেখা গেছে।এসময় বেশ কয়েকজন নারী ভোটারকে ভোট দানের অপেক্ষায় গাছের ছায়ার নিচে বসে থাকতে দেখা যায়,জানতে চাইলে তারা জানান,সকাল-৭টায় তারা বাড়ী থেকে ভোট দেয়ার উদ্দেশ্যে আসে। দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকায় ক্লান্ত হয়ে তারা একটু বিশ্রাম নিচ্ছেন,ভোট দিয়ে তারা বাড়ী ফিরবে।

সকাল থেকে জেলা প্রশাসক আবু সেলিম মাহমুদ উল হাসান,পুলিশ সুপার খোন্দকার নুরুন্নবী, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন পাটওয়ারীসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তারা বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন করেন। জেলা প্রশাসক আবু সেলিম মাহমুদ উল হাসান জানান,নির্বাচন শান্তিপূর্নভাবে গ্রহনের লক্ষে প্রশাসন সর্ব্বোচ্চ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে। নির্বাচনে কম্পিউটার প্রতিকের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী নুর মোহাম্মদ জাকের হায়দার অভিযোগ করেন,শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের মধ্যেও প্রতিপক্ষ নৌকা প্রতিকের প্রার্থীর কর্মীরা ভোট শুরুর আগেই তার এজেন্টদেরকে কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়েছে।তবুও নির্বাচনে ভোটগ্রহন শান্তিপূর্ণভাবে হচ্ছে বলে তিনি জানান। নৌকা প্রতিকের মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ মোস্তফা স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর অভিযোগ অস্বীকার করেন। তিনি জানান,শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহন চলছে এবং তিনিই বিপুল ভোটে জয়লাভ করবেন। এদিকে সবগুলো ভোট কেন্দ্রেই বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা কর্মীদের তৎপর থাকতে দেখা যায়।

বার্তা প্রেরক
শেখ আশিকুন্নবী সজীব
ফেনী প্রতিনিধি

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন